Thursday, 17 June 2021

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নির্যাতনের প্রতিবাদ

দেশের অন্যতম সেরা অনুসন্ধানী সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে দীর্ঘ পাঁচ ঘন্টার অধিক সময় আটকিয়ে রেখে যেভাবে হেনস্তা করে, লাঞ্চনা করে, গলা টিপে ধরে, মানসিক নির্যাতন চালিয়ে, বেহুশ করে দিয়ে শাহবাগ থানায় সোপর্দ করা হলো।

এই পুরো ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট স্বাস্হ্য মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও তার অধিনস্থ কর্মকর্তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত। যদি সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম কোন অপরাধ করে থাকেন, তবে থাকে পুলিশের কাছে তুলে দেয়া যেত।

পুলিশ বিধি মোতাবেক তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিত। কিন্তু একজন প্রতিষ্ঠিত সাংবাদিকের সাথে তারা যে আচরন ও অবিচার করেছেন তার জন্য সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে মামলা করে গ্রেফতার করা উচিত ছিল। উল্টো মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে তাঁর বিরুদ্ধে তথ্য ও নথি চুরির বানোয়াট অভিযোগ এনে শাহবাগ থানায় মামলা করা হলো। এবং তাঁকে গ্রেফতার দেখিয়ে সারা রাত থানায় আটকিয়ে রেখে সকালে সিএমএম আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড চাইলো পুলিশ। যদিও বিজ্ঞ আদালত রিমান্ডের আবেদন নাচক করে দিয়ে তাঁকে কারাগারে প্রেরণ করার নির্দেশ দিয়েছেন।

অন্যদিকে তাঁকে থানায় বেহুশ অবস্থায় নিয়ে গিয়ে যেভাবে মেঝেতে ফেলা রাখা হলো, কিংবা তাঁকে দীর্ঘ সময় চিকিৎসা সেবা না দিয়ে যেভাবে মানসিক নির্যাতন করা হলো- এটাও পুলিশের উচিত হয়নি। এটাও কি পুলিশের অপরাধ নয় ?

একজন দেশসেরা অনুসন্ধানী সাংবাদিকের বিরুদ্ধে তথ্য চুরি অভিযোগ আনা সত্যিই লজ্জার ও হাস্যকর। সাংবাদিকতো তথ্য সংগ্রহ করবেন জনস্বার্থে। এটাই তার মুখ্য কাজ। তাছাড়া সাংবাদিকতার স্বার্থে তথ্য কিংবা নথি সংগ্রহ করা কোন অপরাধ নয়- এটা বোধহয় ভুলে গেছেন আমাদের নীতি নির্ধারকগণ।

আমরা সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের অবিলম্বে নি:শর্ত মুক্তি এবং তাঁকে নিপীড়নকারী সকলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করছি। সংশ্লিষ্টদের আইনের আওতায় এনে গ্রেফতার দাবী করছি। একই সাথে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের মানহানীর জন্য নায্য ক্ষতিপুরণ দাবী করছি। পাশাপাশি এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

সরকারকে বিষয়টি গুরুতর অপরাধ হিসেবে বিবেচনায় নিয়ে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়ার জোর দাবী জানাচ্ছি। একই সাথে এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার সম্মানজনক সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত সকল সাংবাদিকে প্রতিবাদ অব্যাহত রাখার অনুরোধ জানাচ্ছি। মানবাধিকার সংগঠনগুলোকে এই লজ্জাজনক ঘটনার বিরুদ্ধে স্বোচ্ছার হওয়ার আহবান জানাচ্ছি।

CCD Bangladesh © 2021 All Rights Reserved.