নারীদের নিয়ন্ত্রণ করার মনোভাব পরিবর্তন করতে হবে

বাংলাদেশে যে নারীরা কাজ করছেন, সারাক্ষণই কাজ করছেন। ঘরে-বাইরে সব জায়গায় করছেন, তাদের কিন্তু কোনো বিশ্রাম নাই।

এখন আমরা প্রতি বছর আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন করি। তাতে আমরা একটা কথা বলে আসছি বেশ কয়েক বছর যাবৎ গৃহে যে নারীরা কাজ করছে সেই কাজটিকে কাজ হিসাবে স্বীকৃতি দিতে হবে।

অর্থাৎ আমাদের যে জিএনপি আছে সেই জিএনপির মধ্যে কিন্তু গৃহের কাজ বা অদৃশ্য কাজগুলো আমাদের অর্থনৈতিকভাবে সম্পৃক্ত হচ্ছে না।

যার ফলে নারীর যে কাজ সেটিকে মূল্যায়ন করছি না সঠিকভাবে। আমরা সেটিই মূল্যায়ন করি যেটি কিনা বাজার অর্থনীতির সাথে সম্পৃক্ত।

সন্তান-সন্ততি পালনের দায়িত্ব কেবলমাত্র নারীর না, পুরুষেরও। সেটিকে চাইল্ড কেয়ার বেনিফিটস দিলে বা চাইল্ড কেয়ার ফেসিলিটিজ থাকলে উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত যারা, তারা কিন্তু সেই কাজটি করতে যেতে পারে।

তাদের নিরাপত্তাবোধ বৃদ্ধি পাবে। নিরাপদে সে তার শিশুকে রেখে যেতে পারে এবং সেখানে তারা কাজ-কর্ম করতে পারে এবং সে যেটা শিখে এসেছে, যে প্রশিক্ষণটা সে পেয়েছে সেটার যথাযথ ব্যবহার সে করতে পারে।

আমরা এখনো নারীকে মানুষ হিসেবে দেখছি না, আমরা তাকে দ্বিতীয় শ্রেণীর নাগরিক হিসেবে দেখছি। তাকে নিয়ন্ত্রণ করা যায় এভাবেই দেখছি।

আমরা যখন বিজ্ঞাপনগুলো দেখি, সেখানেও দেখি যে একটা নিয়ন্ত্রণমূলক আচরণ বহিঃপ্রকাশ পাই।

CCD Bangladesh © 2021 All Rights Reserved.