Thursday, 17 June 2021

অসহায় বস্তিবাসিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে এসেছে তরুণরা

করোনা মহামারি সংক্রমণ রোধে সিসিডি বাংলাদেশের উদ্যোগে রাজশাহী জেলার ভদ্রা এলাকার সংলগ্ন দু’টি বস্তিতে সচেতনতামূলক ইয়ুথ ক্যাম্পেইন আয়োজন করা হয়।

আয়োজিত এই ক্যাম্পেইনে বস্তিতে বসবাসকারী প্রায় ৩০০ মানুষকে সচেতন করা হয় করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতা সম্পর্কে। এছাড়াও তাদের মধ্যে করোনা মহামারি মোকাবিলায় সঠিক নিয়মে স্বাস্থ্যবিধি চর্চা করানো হয়, যেন তারা প্রতিদিনের জীবনে নিরাপদ থাকতে পারে।

আলোচনা শেষে সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক ও সাবান বিতরণ করা হয়। ক্যাম্পেইনটি সার্বিক সহযোগিতায় ছিলো ইউনিসেফ।
সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা ছড়িয়ে দিতে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অভ্যাস গড়ে তুলতেই এই আয়োজন বলেছিলেন সিসিডি বাংলাদেশের কর্মসূচী সমন্বয়ক সামসুন্নাহার সুইটি।

করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বাংলাদেশে শুরু হয়েছে মোটামোটি মার্চ থেকে। সেই সময় থেকে আমাদের বাংলাদেশের সাধারণ মানুষও করোনা ভাইরাসের বিষয়টা জানে। কিন্তু তারপরও যাদের কাছে বিনোদনের জন্য পত্রিকাটা পড়তে পারছে না, টেলিভিশনটা দেখতে পাচ্ছে না, তারা হচ্ছে এই বস্তিতে থাকা এই সাধারণ মানুষগুলো। এই মানুষগুলোর কাছে করোনা বিষয়ক সচেতনতাগুলো আবার আমরা নিজেরা এসে তাদের বলছি যেন তারা অন্তত এটার গুরুত্বটা উপলব্ধি করতে পরে। আজ খুবই ছোট পরিসরে আমরা তাদেরকে মাস্ক দিয়েছি, সাবান দিয়েছি এবং সেই সাথে তাদের সাথে আলোচনা করেছি যে করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে তারা তাদের জায়গা থেকে কি কি করতে পারে। হইতো আমাদের দেয়া মাস্ক বা সাবান তাদের জন্য যথেষ্ট হবে না, এটা আমাদের লক্ষ্যও না। আমাদের মূল লক্ষ্যটা হচ্ছে, তাদের মধ্যে যেন একটা অভ্যাস তৈরি হয় যে আমাদেরকে সাবানটা দিয়ে হাত ধুতে হবে এবং আমাদেরকে মাস্কটা ব্যবহার করতে হবে। আমরা বলছি না আপনাকে সার্জিক্যাল মাস্ক ব্যবহার করতে হবে এমন কিছু না। আপনারা বাসায় তৈরি তিন লেয়ারের কাপড়ের মাস্ক ব্যবহার করুন। আপনার বাসায় যে সাধারণ সাবানটা আছে সেটা দিয়ে আপনি আপনার হাত ধোন। কিন্তু হাতটা ধুতে, হবে, সামাজিক দুরত্বটা বজায় রাখতে হবে এবং মাস্কটা পড়তে হবে। এই অভ্যাসের ম্যাসেজটা তাদের কাছে পৌছে দেয়া, এটাই মূলত আজকের কর্মসূচীর উদ্দেশ্য।

সিসিটি বাংলাদেশের নির্বাহী সদস্য হাসান রাজিব বলেন করোনা মহামারিকালে এই ধরণের কর্মসূচীর মাধ্যমে মানুষকে সচেতন হতে হবে এবং আমরা এই মানুষগুলোকে ভালো রাখতে পারবো।

ইউনিসেফের সহযোগিতায় রেডিও পদ্মা ও সিসিডি বাংলাদেশের আয়োজনে আজকে এই শহরের বিভিন্ন প্রান্তে প্রান্তিকজনেরা আছে, তাদের মধ্যে যে করোনা ভাইরাস নিয়ে সচেতনতার যে প্রোগ্রাম আমরা করলাম সেখানে খুব সুন্দরভাবে লক্ষ্য করা গেছে যে, তাদের মধ্যে যে একটা সচেতনতা তৈরির যে সূচনা সেটা আমরা লক্ষ্য করেছি। এটা নিয়ে অনেক প্রচার প্রচারণা হয়েছে। কিন্তু আসলে এই অভ্যাসটা দীর্ঘদিন থেকে তাদের মধ্যে নাই, যার কারণে নতুন করে শোনা এবং বার বার একই তথ্য যখন তারা পাচ্ছে তখন সেটাতে কিন্তু তারা অভ্যস্ত হয়ে উঠছে। এবং এই অভ্যস্ততার মধ্য দিয়েই আগামীতে আমরা করোনা ভাইরাসের যে সময়টা পার করছি তারা সুস্থ্য থাকবে ভালো থাকবে এটাই আমরা প্রত্যাশা করি। তাদের দিক থেকেও আমরা খেয়াল করেছি যে, তারা অনেক বেশি আগ্রহি এই সমস্ত মাস্ক ব্যবহারে অথবা সাবান পানি দিয়ে হাত ধুতে। হইতো তারা কোনভাবে সাবানের জোগাড়টা করতে পারে, কিন্তু মাস্ক বা নিয়মিত মাস্কটা কিভাবে পড়বে, কতটুকু নিয়ন্ত্রণ রেখে পড়া উচিত বা একটা মাস্ক কতবার পড়তে পারবে, এই বিষয়গুলো নিয়ে তাদের মধ্যে খুব বেশি সচেতন তারা সেটা কিন্তু আমরা লক্ষ্য করিনি। সেক্ষেত্রে আমরা যখন এই অনুষ্ঠানগুলো করছিলাম, তাদেরকে এই তথ্যগুলো দিচ্ছিলাম যে একটা মাস্ক তারা পড়ছেন, তারা শ্রমজীবি মানুষ, তারা বিভিন্ন কাজে থাকেন, মাস্কটা কতটুকু কোথায় রাখা যাবে, কোথায় রাখা যাবে না, কিভাবে ব্যবহার করতে হবে এইসব বিষয় সম্পর্কে তারা খুব বেশি অবগত ছিলেন না। এই প্রোগ্রামটা হওয়ার পরে তারা নিজে থেকেই বলেছেন যে, কি করা উচিত বা কি করা উচিত না। এখানে যে মাস্ক এবং সাবান বিতরণ করা হয়েছে, তারা এগুলো পেয়ে অত্যন্ত খুশি, প্রচন্ড আনন্দিত হয়েছেন। এর মধ্য দিয়ে তারা বলছে যে, এখন থেকে তারা এটা ব্যবহার করবে এবং করোনা বিষয়ে সচেতন হবে।

এই ভালো শিক্ষণগুলো অব্যাহত থাকলে এবং মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার চর্চা গড়ে উঠলে সম্ভব হবে করোনা মহামারির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা।

CCD Bangladesh © 2021 All Rights Reserved.